• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ৯ বৈশাখ ১৪২৮
  • ||
  • আর্কাইভ

রাজাপুরে জাইকার ব্রিজ এখন মরণ ফাঁদ

প্রকাশ:  ০৫ অক্টোবর ২০১৭, ১৬:২০
ঝালকাঠি সংবাদদাতা
প্রিন্ট

ঝালকাঠির রাজাপুরের বড়ইয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ বড়ইয়ায় দরের খালের উপর ২০১৩ সালের ২৮ ডিসেম্বর শুরু হওয়া জাইকা প্রজেক্টের ১ কোটি ১৭ লাখ ৭৮ হাজার টাকার ব্রিজটির নির্মাণ কাজ এখনো শেষ হয়নি। ব্রিজটি নির্মাণকাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার কথা থাকলেও সম্পূর্ণ কাজ শেষ করেনি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স মিতুসি ট্রেডার্স। 

ব্রিজের দুই পাশের এপ্রোস সড়কের কাজ বাকি থাকায় ব্রিজ পারাপারে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকার শিশু শিক্ষর্থীসহ স্থানীয় লোকজনদের।

এ ছাড়াও বিশখালী নদীর খেয়ায় পার হতে এ ব্রিজ দিয়ে যাতায়াত করে উপজেলার হাজার হাজার মানুষ। ১০৯নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ব্রিজের দক্ষিণ পারে হওয়ায় কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীরা প্রতিদিনই পোহাচ্ছে চরম দুর্ভোগ ও ব্রিজে উঠতে গিয়েও দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন অনেকেই। অভিবাবকরা তাদের ছেলে-মেয়েকে স্কুলে পাঠিয়ে দুশ্চিন্তার মধ্যে দিন কাটায়।

স্থানীয় নুরুল ইসলাম, অটোচালক হাফিজুর রহমান, দ্বীন ইসলাম, সোহাগ ও রুবেল খান সহ আরো অনেকে জানায়, ব্রিজটির এপ্রোস সড়ক না হওয়ায় আমাদের যাতায়াতে অনেক দুর্ভোগ পেহাতে হচ্ছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স মিতুসি ট্রেডাসের ঠিকাদার মুমিন সিকদার প্রভাবশালী হওয়ায় ব্রিজের কাজ শেষ না করেই বিল তুলে নেয়। কাজ করার সময়ও তিনি এই এলাকার লোকজনের সঙ্গে খারাপ আচরণ করতো। 

উপজেলা প্রকৌশলী মো. লুৎফর রহমান বলেন, কাজ শেষ করার জন্য একদিক বার নোটিশ করা হলেও ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের টনক নরছে না।

বাস্তবায়ন সংস্থার জেলা কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন জানায়, কাজের চুড়ান্ত বিল এখন সে উত্তোলন করেনি। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে ২৮ দিনের মধ্যে এপ্রোস সড়ক সম্পূর্ণ করার নিমিত্তে চুড়ান্ত নোটিশ প্রেরণের কাজ চলছে।

এসএম

সর্বাধিক পঠিত