• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • শনিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪৩০
  • ||
  • আর্কাইভ

গাজায় যুদ্ধবিরতির কাছাকাছি ফিলিস্তিন-ইসরায়েল

প্রকাশ:  ২১ নভেম্বর ২০২৩, ১১:১১
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের সঙ্গে যুদ্ধবিরতি চুক্তির কাছাকাছি রয়েছেন বলে জানিয়েছেন হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়াহ। মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের কাছে এই তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

ইসমাইল হানিয়াহ বলেন, হামাস কর্মকর্তারা ইসরায়েলের সঙ্গে একটি যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে পৌঁছানোর কাছাকাছি রয়েছেন। এরই মধ্যে তারা কাতারের কর্মকর্তাদের কাছে তাদের জবাব দিয়ে দিয়েছেন। তবে সম্ভাব্য এই চুক্তির শর্ত সম্পর্কে আর কোনো তথ্য দেননি তিনি। এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সোমবার বন্দিবিনিময় নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে একটি চুক্তির কাছাকাছি আছেন বলে জানান। আর হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, গাজায় হামাসের হাতে আটক কয়েকজন জিম্মির মুক্তির বিনিময়ে সেখানে সাময়িক যুদ্ধবিরতি দেওয়া হবে। এই সময়ের মধ্যে গাজায় অতিপ্রয়োজনীয় মানবিক ত্রাণসহায়তা দেওয়া হবে।

অবশ্য হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে বন্দিবিনিময় চুক্তি হয়ে গেছে, এমন খবর বেশ কয়েক দিন ধরেই দিয়ে আসছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। সোমবার (২০ নভেম্বর) ইসরায়েলের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কেএএনের বরাতে তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদোলু জানায়, হামাসের সঙ্গে বন্দিবিনিময় চুক্তি করতে সবুজ সংকেত দিয়ে দিয়েছে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ। এখন তারা হামাসের জবাবের অপেক্ষা করছে। হামাস ইতিবাচক সাড়া দিলেই দুপক্ষের মধ্যে এই ধরনের চুক্তি হবে।

গত শনিবার (১৮ নভেম্বর) মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট জানায়, ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় সাময়িক যুদ্ধবিরতি নিয়ে একটি চুক্তিতে পৌঁছেছে হামাস, যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল। চুক্তির আওতায় হামাস বেশ কয়েকজন জিম্মিকে মুক্তি দেবে। বিনিময়ে পাঁচ দিনের যুদ্ধবিরতি দেবে ইসরায়েল। যদিও পরে ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্র বিষয়টি অস্বীকার করে।

এর আগে গত সপ্তাহে কাতারের মধ্যস্থতায় হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে একটি চুক্তির খবর দিয়েছিল রয়টার্স। চুক্তির আওতায় তিন দিনের যুদ্ধবিরতির বিনিময়ে ৫০ জন জিম্মিকে মুক্তি দেবে ইসরায়েল। গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে নজিরবিহীন হামলা চালিয়ে ১২০০ ইসরায়েলি হত্যার পাশাপাশি দুই শতাধিক ইসরায়েলি ও বিদেশি নাগরিককে জিম্মি করে গাজায় নিয়ে যায় হামাস। এরপর হামসকে নিশ্চিহ্নের নাম করে গাজায় নির্বিচারে হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। ইসরায়েলি হামলায় এরই মধ্যে ১৩ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। নিহতদের অধিকাংশই নারী ও শিশু।

গাজায় হাজার হাজার মানুষ হত্যার প্রতিবাদ এবং যুদ্ধবিরতির দাবিতে বিশ্বজুড়ে প্রতিদিন লাখ লাখ মানুষ বিক্ষোভ-সমাবেশ করলেও তা আমলে নিচ্ছে না ইসরায়েল ও তার পশ্চিমা মিত্ররা।

সর্বাধিক পঠিত