• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • শনিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪৩০
  • ||
  • আর্কাইভ

আজ শুভ জন্মাষ্টমী

প্রকাশ:  ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৩:০২
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

আজ ৬ সেপ্টেম্বর সারাদেশে ব্যাপক ধর্মীয় আয়োজনের মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বী ভক্তবৃন্দ উদ্যাপন করবে তাদের উপাস্য পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উৎসব। এ উপলক্ষে আজ সারাদেশের ন্যায় চাঁদপুর জেলার সকল উপজেলায় ব্যাপক আয়োজনে সনাতন ধর্মাবলম্বী ভক্তবৃন্দ বের করবেন জন্মাষ্টমীর বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। কামনা করবেন নিজেদের সুখ-শান্তি আর দেশ ও জাতির কল্যাণ। জন্মাষ্টমীর মূল আয়োজন হচ্ছে জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদ ও জেলা জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা।
শ্রীমৎ ভাগবত পুরাণ অনুযায়ী ভাদ্র মাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী তিথির রোহিনী নক্ষত্রে দ্বাপর যুগে বিষ্ণুর অষ্টম অবতার রূপে, দেবকীর গর্ভে জন্মগ্রহণ করেন ভগবান শ্রীকৃষ্ণ। তাদের সেই বিশ্বাস মতে, প্রতি বছর ভাদ্র মাসের এইদিনে উৎসবমুখর পরিবেশে ব্যাপক আয়োজনে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি উদ্যাপন করে থাকেন সনাতন ধর্মাবলম্বী মানুষজন।
ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি উদ্যাপনে আজ চাঁদপুরে জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদ ও জেলা জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হবে মূল আয়োজন। শহরের বিভিন্ন মন্দির থেকে শোভাযাত্রা বের হয়ে হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে একত্রিত হবে। সেখান থেকে বাদ আছর তথা বিকেল ৫টায় বের হবে বিশাল বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। এ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম এবং চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায় ও সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ এবং জেলা জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি পরেশ চন্দ্র মালাকার ও সাধারণ সম্পাদক কার্তিক সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এছাড়া জন্মাষ্টমী উপলক্ষে অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ন্যায় পুরাণবাজার জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ, জন্মাষ্টমী উদ্যাপনে দুইদিনব্যাপী ধর্মীয় নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আজ প্রথম দিন ৬ সেপ্টেম্বর পুরাণবাজার হরিসভা মন্দির কমপ্লেক্স থেকে পৌরাণিক সাজে সজ্জিত হয়ে বের হবে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। বিকেল সাড়ে ৩টায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম (সেবা), জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদ, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, জেলা জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ। বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উদ্বোধন করবেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায়। বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শেষে হরিসভা মন্দির কমপ্লেক্সে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অনুষ্ঠিত হবে শ্রীমদ্ভাগবত গীতা আবৃত্তি, নারীদের শঙ্খ উলুধ্বনি ও মোমবাতি প্রজ্জ্বলন এবং নৃত্য প্রতিযোগিতা। রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে ধর্মীয় আলোচনা সভা। ধর্মীয় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, সাধারণ সস্পাদক তমাল কুমার ঘোষ, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ রণজিত রায় চৌধুরীসহ আমন্ত্রিত অতিথিবর্গ। পরদিন ৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার একই স্থানে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অনুষ্ঠিত হবে বৈদিক নৃত্যানুষ্ঠান, সন্ধ্য সাড়ে ৭টায় ধর্মীয় আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল, জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লায়ন দিলীপ কুমার ঘোষ (এম. জে. এফ), সংগঠক ও সমাজসেবক সালাউদ্দিন মোহাম্মদ বাবরসহ আমন্ত্রিত অতিথিবর্গ।
আলোচনা সভা শেষে অনুষ্ঠিত হবে সপ্তরূপা নৃত্য শিক্ষালয়ের অধ্যক্ষ অনিমা সেন রায় চৌধুরীর পরিচালনায় গীতিআলেখ্য সাক্ষী গোপাল। অনুষ্ঠান শেষে ভক্তদের মাঝে হবে প্রসাদ বিতরণ। আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিনম্রচিত্তে সকলের উপস্থিতি কামনা করেছেন পুরাণবাজার জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি প্রণব সাহা (নন্দা) ও সাধারণ সম্পাদক লিটন সাহা।
এছাড়া ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী তিথি উদ্যাপনে নতুনবাজার গোপাল জিউড় আখড়া, পুরাণবাজার ঘোষপাড়া সার্বজনীন জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ, পুরাণবাজার দাসপাড়া পূজামণ্ডপ ও পুরাণবাজার শ্রী শ্রী গৌর নিত্যানন্দ মহাপ্রভুর মন্দির, পুরাণবাজার রামঠাকুর বাড়ি দোলমন্দির, সার্বজনীন জগন্নাথ মন্দির, পুরাণবাজার শ্রী শ্রী রাধামুরারী মোহন জিউড় মন্দিরসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন মন্দির কর্তৃপক্ষ জন্মাষ্টমী উদ্যাপনে ব্যাপক আয়োজন করেছেন বলে জানা যায়।

 

সর্বাধিক পঠিত