• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০
  • ||
  • আর্কাইভ

বঙ্গবন্ধু আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্টে চাঁদপুরে চ্যাম্পিয়ন মতলব সরকারি কলেজ

স্কুল ও কলেজ পর্যায় প্রতিযোগিতা শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া নৈপুণ্য প্রদর্শনের একটি প্লাটফর্ম : জেলা প্রশাসক

প্রকাশ:  ১৩ জুন ২০২৩, ০৯:৫২
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

চাঁদপুরে অনুষ্ঠিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্টে-২০২৩ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মতলব সরকারি ডিগ্রি কলেজ। গতকাল ১২ জুন সোমবার বিকেলে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার সমাপনী অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় মতলব সরকারি কলেজ  টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে চাঁদপুর সরকারি কলেজ দলকে পরাজিত করে। খেলার নির্ধারিত সময় ১-১ গোলে ড্র ছিলো।
খেলার প্রথমার্ধে ইনসানের দেয়া গোলে এগিয়ে যায় চাঁদপুর সরকারি কলেজ। দ্বিতীয়ার্ধের শেষদিকে সঙ্ঘবদ্ধ আক্রমণ থেকে গোল করে মতলব সরকারি কলেজকে সমতায় ফেরান সোহাগ। পরে জয়-পরাজয় নিষ্পত্তিতে খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। মতলবের চারটি শর্টই গোল হয়। বিপরীতে চাঁদপুর সরকারি কলেজের দুটি শর্ট মিস হয় এবং দুটি গোল জালে জড়ায়।
খেলার দ্বিতীয়ার্ধে রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে মতলব সরকারি কলেজ দলের খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তারা বাকবিতণ্ডা ও তর্কে লিপ্ত হয়। এ সময় গোলযোগের কারণে কিছু সময় খেলা বন্ধ রাখা হয়। পরে উভয় দল খেলায় ফিরে।
টুর্নামেন্টে ম্যান অব দ্যা ফাইনাল চাঁদপুর সরকারি কলেজের শাওন এবং ম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্ট নির্বাচিত হয় মতলব সরকারি কলেজের সোহেল।
খেলা শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে দু দলের মাঝে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ ট্রফি এবং সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার  প্রদান করেন জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) বশির আহমেদের সভাপতিত্বে ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবুর সঞ্চালনায় সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) ইয়াসির আরাফাত, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল। এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি এএইচএম আহসান উল্লাহ, জেলা ক্রীড়া অফিসার মোঃ তারিকুল ইসলাম, চাঁদপুর সদর ইউএনও সানজিদা শাহনাজ, মতলব দক্ষিণ ইউএনও রেনু দাসসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া অফিস চাঁদপুরের আয়োজনে এবং চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সার্বিক সহযোগিতায় জেলা পর্যায়ে এই আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্টে চাঁদপুর জেলার ৮ উপজেলা থেকে ৮টি কলেজ দল অংশ নেয়।
এদের মধ্যে চাঁদপুর সরকারি কলেজ ও মতলব সরকারি কলেজ ফাইনালে উত্তীর্ণ হয়। চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল হিসেবে এ দুটি দল চট্টগ্রাম বিভাগীয় পর্যায় প্রতিযোগিতায় খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে ।
সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান তাঁর বক্তব্যের শুরুতে স্বাধীনতার মহান স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীর শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় ও কৃতজ্ঞতায় স্মরণ করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।
তিনি বলেন, ২০০৮ সাল থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা আন্তঃপ্রাইমারি স্কুল ফুটবল প্রতিযোগিতা এবং পরবর্তীতে অনূর্ধ্ব-১৭ বালক-বালিকা টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হয়। ২০২৩ সালে এই প্রথম কলেজ পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছে। যা উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায় শেষ করে জাতীয় পর্যায়ে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। তিনি মনে করেন প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও কলেজ এই তিনটি পর্যায়ে আমাদের শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া নৈপুণ্য প্রদর্শনের একটি প্ল্যাটফর্ম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তৈরি করে দিয়েছেন। আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর দায়িত্ব হবে প্রতিটি পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন্য বছরব্যাপী তাদের প্রস্তুত করা। যখনই প্রতিযোগিতার আয়োজন হবে তারা যেনো অনুপম ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করতে পারে। কারণ ফুটবল খেলার মাধ্যমে একজন মানুষ তার ক্যারিয়ার গঠন করতে পারে। আমরা বিশ্বের নামীদামী ফুটবলার ক্রিকেটার অ্যাথলেটিক্সদের ক্ষেত্রে তা দেখছি।
জেলা প্রশাসক বলেন, আমাদের শিক্ষকরা জাতি গড়ার কারিগর, আবার তাঁরা ক্রীড়ায় খেলোয়াড় তৈরিরও কারিগর। ক্রীড়া শিক্ষকরা অ্যাক্টিভলি রোল প্লে করে, তাহলে চাঁদপুর থেকে আমাদের ভালো ভালো খেলোয়াড় তেরি হবে।
এদিন এই বঙ্গবন্ধু আন্তঃকলেজ ফুটবল প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা দেখার জন্য মাঠে প্রচুর দর্শক সমাগম ঘটে। বৃষ্টি ভেজা পিচ্ছিল মাঠে দুদলের সমান লড়াইয়ের খেলা দেখে অনেকে মুগ্ধ হলেও ফুটবল খেলায় যে গণ্ডগোল হয় চিরচেনা সেই দৃশ্য গতকালকের খেলার মাঠেও দেখা যায়। এক পর্যায়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাদের মাঠে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে হয়েছে।

 

সর্বাধিক পঠিত