• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮
  • ||
  • আর্কাইভ

৩০৭টি সংযোগ বিচ্ছিন্ন দেড় কোটি টাকা আদায়

প্রকাশ:  ১৫ জুন ২০২১, ১২:৫৩
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

চাঁদপুর শহরে পেট্রোবাংলার অন্তর্ভুক্ত বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের বিশেষ অভিযানে গত পনের দিনে এ পর্যন্ত অবৈধ ও বকেয়ার জন্যে ৩০৭টি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। এর মধ্যে বকেয়ার জন্যে ৯৭টি এবং অবৈধ সংযোগের কারণে ২১০টি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। ১৩ ও ১৪ জুন গত দুদিন শহরের পুরাণবাজারে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ অভিযান চালানো হয়েছে। এখানে ৩০/৩৫টি লাইন কাটা হয়। অভিযানের চাপে গ্রাহকদের থেকে তাৎক্ষণিক ৪৭ লক্ষসহ আদায় হয়েছে প্রায় দেড় কোটি টাকা। এসব তথ্য নিশ্চিত করেন বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিঃ চাঁদপুরের ব্যবস্থাপক (বিক্রয়) প্রকৌশলী মোঃ মাহমুদুজ্জামান।


তিনি জানান, আবাসিক গ্যাস সংযোগগুলোর মধ্যে বাসা-বাড়িতে অনুমোদনের অতিরিক্ত চুলা বেশি পাওয়া গেছে। যতোদিন পর্যন্ত অবৈধ লাইন পাওয়া যাবে, ততোদিন এ অভিযান চলবে। প্রাথমিকভাবে আমাদেরকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযানের একমাস টার্গেট দেয়া হয়েছে।

 


বাখরাবাদ গ্যাস চাঁদপুরের এ কর্মকর্তা আরও জানান, এখন আমরা চাঁদপুর শহরসহ আশপাশের এলাকায় অভিযান করছি। এরপর হাজীগঞ্জ, শাহরাস্তি এবং মতলবে অভিযান করবো। এই অভিযানে মাঠে নেমেছে ২১টি টিম। প্রতিটি টিমে ৪ জন করে মোট ৮৪ জন কাজ করছে।


জানা যায়, চলমান সময়ে নতুন করে গ্যাস সংযোগ দেয়ার কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার। কিন্তু গোপনে অনেকেই অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ চালাচ্ছেন। অথচ চাঁদপুর বাখরাবাদ গ্যাসের আওতায় চাঁদপুর সদর, হাজীগঞ্জ, শাহরাস্তি এবং মতলব দক্ষিণ রয়েছে। যেখানে আবাসিক ২৩ হাজার ৮৫০টি, বাণিজ্যিক ২০৬টি, সিএনজি ৫টি, ক্যাপটিক ৩টি, ১টি পাওয়ার এবং ২টি ইন্ডাস্ট্রি বৈধ গ্রাহক রয়েছে। কতিপয় ঠিকাদার ও বাখরাবাদ গ্যাস সিস্টেম লিমিটেডের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে অবৈধ সংযোগের কারণে সরকার বিপুল পরিমাণ টাকার রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে।