• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||
  • আর্কাইভ

ব্রেকিং নিউজ

চাঁদপুরে দশ দিনে সাড়ে ১৮ হাজার করোনার ভ্যাকসিন প্রদান

প্রকাশ:  ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:১৩
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

করোনা তথা কোভিড-১৯-এর ভ্যাকসিনের প্রতি মানুষের আগ্রহ দিন দিন বাড়ছে। এই ভ্যাকসিন দেয়ার সংখ্যা এখন প্রতিদিনই দ্বিগুণ ছাড়িয়ে যাচ্ছে। সারাদেশের সাথে চাঁদপুরেরও একই চিত্র। ভ্যাকসিন দেয়ার কেন্দ্রগুলোতে রীতিমতো ভীড় লেগে যাচ্ছে। সপ্তাহে শুক্রবার বাদে প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত এই ভ্যাকসিন দেয়া হয়। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এই ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম পরিচালনা করছে। সিভিল সার্জন পুরো জেলাকে তদারকি করছেন আর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাগণ নিজ নিজ উপজেলায় এই কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।


চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাখাওয়াত উল্লাহর সাথে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত চাঁদপুর জেলায় সাড়ে ১৮ হাজারেরও অধিক পরিমাণ টিকা দেয়া হয়েছে। গত ৭ ফেব্রুয়ারি চাঁদপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে এই টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়। এদিন স্থানীয় সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে চাঁদপুর জেলায় এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। সেদিন থেকে গতকাল পর্যন্ত দশ দিনে এই জেলার সাড়ে ১৮ হাজারেরও অধিক সংখ্যক মানুষ এই টিকা দিয়েছে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় দিয়েছে পাঁচ হাজার। গতকাল একদিনে সদর উপজেলায় এই টিকা দেয়ার সংখ্যা হচ্ছে এক হাজার।

জানা গেছে, প্রথম পাঁচদিনে পুরো জেলায় টিকা দেয়ার সংখ্যা হচ্ছে প্রায় তিন হাজার। আর গতকাল পর্যন্ত দশ দিনে এই সংখ্যা সাড়ে ১৮ হাজারে গিয়ে পেঁৗছে। এতেই বুঝা যাচ্ছে টিকা দেয়ার প্রতি মানুষের আগ্রহ কী পরিমাণ বাড়ছে। সিভিল সার্জন জানান, চাঁদপুরে প্রথম দফা ৭২ হাজার ডোজ এসেছে। এর মধ্যে সাড়ে ১৮ হাজারের অধিক সংখ্যক মানুষ দিয়ে ফেলেছে। আগামী সপ্তাহে দেশে দ্বিতীয় দফা প্রায় চার লাখ ভ্যাকসিন আসবে। সেখান থেকে চাঁদপুরের জন্যে দ্বিতীয় দফা বরাদ্দ আসবে।

সদর উপজেলা এবং চাঁদপুর পৌরসভার জনগণের জন্যে টিকা প্রদান কেন্দ্র হচ্ছে আড়াইশ' শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের সাবেক আইসোলেশন ওয়ার্ড এবং বাবুরহাটস্থ পুলিশ লাইন্স হাসপাতাল। তবে পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে শুধুমাত্র পুলিশ সদস্যরাই টিকা দিচ্ছেন। এছাড়া অন্যান্য উপজেলায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এই টিকা দেয়া হচ্ছে।

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে দেখা যাচ্ছে যে, প্রতিদিনই বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ টিকা দিতে আসছে। এই হাসপাতালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এবং সদর হাসপাতালের স্টাফরা সমন্বয় করে টিকা দিয়ে যাচ্ছেন। আর স্বেচ্ছাসেবীর দায়িত্ব পালন করছেন রেডক্রিসেন্ট ও মাল্টিপারপাস হেলথ ভলান্টিয়ারের স্বেচ্ছাসেবকরা। প্রতিদিন সকালে এসে টিকাদান কার্যক্রম তদারকি করেন সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাখাওয়াত উল্লাহ, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সাজেদা বেগম পলিন এবং সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডাঃ ঈসা রুহুল্লাহ।
গতকাল সকালে সদর হাসপাতালের টিকাদান কেন্দ্রে টিকা নেন চাঁদপুর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ অ্যাডঃ ইকবাল-বিন-বাশার, প্রধান সম্পাদক কাজী শাহাদাত, বার্তা সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি শরীফ চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মোরশেদ আলম রোকনসহ আরো অনেকে।