• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ২৪ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||
  • আর্কাইভ

ব্রেকিং নিউজ

মুজিব শতবর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে আজ ঘর হস্তান্তর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

চাঁদপুর জেলায় ১ম ধাপে পাবে সাত উপজেলায় ১৬০ পরিবার

প্রকাশ:  ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:১০
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

মুজিব শতবর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি এবং গৃহ প্রদান কার্যক্রম আজ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চাঁদপুরসহ সারাদেশে একযোগে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘরের মালিকদের এসব ঘর হস্তান্তর কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়সহ প্রত্যেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ ভিডিও কনফারেন্স সম্প্রচার করা হবে। এ অনুষ্ঠানে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের আমন্ত্রিত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা এবং অন্য আমন্ত্রিতরা উপস্থিত থাকবেন। চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আজ সকাল সাড়ে ৯টায় প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠান সম্প্রচার শুরু হবে।

এদিকে এ ঘর প্রদান উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। এই প্রেস ব্রিফিংয়ের প্রেস নোট থেকে জানা যায়, চাঁদপুর জেলার আট উপজেলায় ১৮০ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার মুজিব শতবর্ষের ঘর পাবে। এর মধ্যে প্রস্তুত রয়েছে ৭ উপজেলার জন্যে ১৬০টি। যা আজ ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে হস্তান্তর কার্যক্রম শুরু হবে। জানা গেছে, প্রতিটি গৃহ নির্মাণ বাবদ ব্যয় ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা।

১৮০টি পরিবারের উপজেলা ভিত্তিক বিভাজন হচ্ছে : চাঁদপুর সদরে ৪০টি, মতলব দক্ষিণ উপজেলায় ২৫টি, মতলব উত্তর উপজেলায় ৫টি, কচুয়া উপজেলায় ১৫টি, শাহরাস্তি উপজেলায় ৫টি, হাজীগঞ্জ উপজেলায় ৫টি ও হাইমচর উপজেলায় ২০টি। এছাড়া মতলব দক্ষিণ উপজেলার চরপাথালিয়া আশ্রয়ণ প্রকল্পে ৪৫টি পরিবারকে পুনর্বাসন করার লক্ষ্যে সেনা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে ৪৫টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। এই ৪৫টি ঘরও মুজিব শতবর্ষের প্রকল্পের আওতায় আনা হয়েছে। এই ৪৫টিসহ সাত উপজেলায় ১৬০টি।

এদিকে চাঁদপুরের আটটি উপজেলার মধ্যে উল্লেখিত সাতটি বাদে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ২০টি ঘর নির্মাণের জন্যে ১১ জানুয়ারি ৩৪ লাখ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এই ঘর নির্মাণ কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এই ২০টি ঘরও মুজিব শতবর্ষের গৃহ নির্মাণ প্রকল্পের আওতায়।

সর্বাধিক পঠিত