• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
  • ||
  • আর্কাইভ

ব্রেকিং নিউজ

প্রথম কার্যদিবসে বিকেল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

ধর্ম, বর্ণ বা কোনো গোষ্ঠীর নয়, সকলের প্রতিনিধি হিসেবে আপনাদের পাশে আছি : মেয়র অ্যাডঃ মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল

প্রকাশ:  ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

চাঁদপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র অ্যাডঃ মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেছেন, জনস্বার্থে নিজেকে কাজে লাগানোর স্বপ্ন নিয়েই মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে লালন করে ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতির মধ্য দিয়ে রাজনৈতিক জীবনে প্রবেশ করি। ছাত্র রাজনীতি শেষে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করছি। আর রাজনীতি হচ্ছে জনসেবার জন্যে। সে ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় একটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ার। এজন্যে বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হয়ে আপনাদের কাছে এসেছিলাম। তিনি বলেন, নির্বাচনের পূর্বে আপনাদের উদ্দেশ্যে বলেছিলাম, মাত্র একটি দিন বা নির্বাচনের দিন আপনারা আমার জন্য কষ্ট করে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করলে আমৃত্যু আপনাদের সুখ-দুঃখে পাশে থাকবো।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচনের পূর্বে আপনাদেরকে যে কথাগুলো দিয়েছি এবং ইশতেহারে যা ঘোষণা করেছি সেগুলো বাস্তবায়নের জন্যে আপনাদের সহযোগিতা চাই।

তিনি আরো বলেন, ১০ অক্টোবর বিজয়ী হওয়ার পর থেকে আমি কোনো দল, গোষ্ঠী, ধর্ম-বর্ণের মেয়র নই। আমি এ পৌরবাসীর মেয়র। আমার দায়িত্ব পালনকালীন চাঁদপুরের সামপ্রদায়িক সমপ্রীতির যে বন্ধন ও ঐতিহ্য রয়েছে সেটি আরো উজ্জ্বল হবে। তিনি শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনকালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি গত ২৫ অক্টোবর চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র পদে দায়িত্ব নিয়ে ঐদিনই বিকেল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত পৌর এলাকার ২৭টি পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন করেন এবং প্রতিটি মণ্ডপে পৌর পরিষদের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান ও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এ সময় পূজারী ও ভক্তদের মাঝে উৎসবের আমেজ দেখা দেয়। সকল বয়সী নারী-পুরুষ পৌর মেয়রকে তাদের কাছে পেয়ে আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে কেউ গ্রুপ ছবি কেউ বা সেলফি তুলতে তাকে ঘিরে ধরেন। অনেকে তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরে মেয়রের সহযোগিতা চান। তিনি সার্বিক সহযোগিতার হাত বাড়াবেন বলে তাদের আশ্বাস প্রদান করেন।

মেয়র অ্যাডঃ মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েলের ২৭টি পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনের বিষয়টি সাধারণ ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরদের পূর্বে অবহিত করা হয়। সে মতে সকল কাউন্সিলর পূজা মণ্ডপের কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে মেয়রকে স্বাগত জানান ।

কাউন্সিলরগণ ছাড়াও বিভিন্ন মন্দিরে উপস্থিত ছিলেন পৌর সচিব মোঃ আবুল কালাম ভূঁইয়া, পৌরসভার প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোঃ মফিজ হাওলাদার, পৌরসভার ক্যাশিয়ার মোঃ মানিক, কর্মকর্তা শাহরিয়ার ও রাসেল আহমেদ। এছাড়াও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডগুলোর আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।