• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
  • ||
  • আর্কাইভ

হাইমচরে ২৭৫০ পরিবারকে খাদ্য সহয়তা দিচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান

প্রকাশ:  ৩১ মার্চ ২০২০, ১০:১২
স্টাফ রিপোর্টার।।
প্রিন্ট

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে চাঁদপুর হাইমচর উপজেলা পরিষদ।

এই উপজেলার জনসাধারণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি, পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচির পাশাপাশি তালিকা করে হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে পর্যাপ্ত পরিমানে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। এছাড়াও ফোন কলের মাধ্যমে একদল স্বেচ্ছাসেবী উপজেলাবাসীকে যে কোনো সেবা দিতে প্রস্তুত রয়েছে।

এমনটাই জানিয়েছেন, হাইমচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূর হোসেন পাটওয়ারী। ৩০ মার্চ সোমবার দুপুরে করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতি বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, উপজেলার ২ হাজার ৭শ' ৫০ জন দরিদ্র পরিবারের তালিকা করে তাদের জন্য আমরা খাদ্য সহায়তা প্রস্তুত করেছি। প্রতিটি খাদ্য সহায়তার প্যাকেটে ১০ কেজি চাল, আলু, আটা, ডাল পেঁয়াজ, লবণ, চিনি, চা পাতা, সাবান সহ দশটি আইটেমের খাদ্যপণ্য রেখেছি। এখানে সবমিলিয়ে ৩২ লাখ ৩৪ হাজার টাকার খাদ্যসহায়তা রয়েছে।  এটি চলমান থাকবে, প্রয়োজনে আমরা আরো বেশি খাদ্য সহায়তা দিতে প্রস্তুত রয়েছি।

নূর হোসেন পাটোয়ারী আরো জানান, আমাদের একটি তরুন স্বেচ্ছাসেবী টিম রয়েছে। যারা পিপিসি পোশাক পরে, নিজেরা সুরক্ষিত থেকে ২০টি মোটরসাইকেলের মাধ্যমে তালিকাভুক্ত এই হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে রাতের বেলা খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিবে। আমরা কোন প্রকার গণজামায়াত করব না, কোন প্রকার ফরেস্টেশনও করবো না। মানুষের বাড়ি গিয়ে চুপিসারে সহযোগিতা করে আসবো। 

তিনি জানান, এছাড়াও সরকারের পক্ষ থেকে জেলেদের জন্য খাদ্য সহায়তার চাল, বিজিডি, বিজিএফ, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, বিধবা ভাতা, টিআর কাবিখাসহ সকল সহায়তা চলমান রয়েছে। এই উপজেলায় কোনো খাদ্য ঘাটটি নেই।

দুই বারের নির্বাচিত এই উপেজলা পরিষদ চেয়ারম্যান আরো বলেন, আমরা অনেক আগ থেকে এই মরণব্যধি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। উপজেলাবাসীর মাঝে কয়েক হাজার মার্কস ও লিফলেট বিতরণ করার পাশাপাশি প্রতিটি বাজারে রাস্তাঘাটে জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করেছি। পাশাপাশি বিদেশ এবং ঢাকা থেকে আগতদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টে থাকা নিশ্চিত করেছি।

সর্বাধিক পঠিত