• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||
  • আর্কাইভ

ব্রেকিং নিউজ

চাঁদপুর রামকৃষ্ণ মিশনের পক্ষে কড়ৈতলী শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রমে কম্বল বিতরণ

প্রকাশ:  ২০ জানুয়ারি ২০২১, ১৪:২৩
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

চাঁদপুর শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রম ও রামকৃষ্ণ মিশনের পক্ষ থেকে কড়ৈতলী শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রমে গত ১৬ জানুয়ারি ২০২০ শনিবার কড়ৈতলী, পাইকপাড়া ও খুরুমখালী গ্রামের ৭৫ জন হিন্দু ও মুসলমান সমপ্রদায়ের ব্যক্তির মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়। এ সময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কড়ৈতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মোঃ সেলিম খান এবং কড়ৈতলী শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রমের সাবেক সভাপতি ও কড়ৈতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিঃ সমরেন্দ্র মিত্র।

কড়ৈতলী শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রমের সাধারণ সম্পাদক রাজন চন্দ্র দের সঞ্চালনায় ও আশ্রমের সভাপতি চন্দন কুমার দের সভাপ্রধানে সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। চাঁদপুর শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রম ও রামকৃষ্ণ মিশনের পক্ষে স্বামী ভবানীশানন্দ মহারাজ উপস্থিত থেকে কম্বল বিতরণ করেন। তিনি বলেন, ঠাকুর রামকৃষ্ণ পরমহংসদেব বলতেন, জীবসেবাই শিবসেবা অর্থাৎ শিবজ্ঞানে জীবসেবা কর। তিনি আরও বলতেন, ঈশ্বর লাভ করতে হলে আমিত্ব ত্যাগ করতে হবে। তিনি বলেন, স্বামী বিবেকানন্দ বলেছেন, জীবে প্রেম করে যেইজন সেইজন সেবিছে ঈশ্বর। তাই আমরা আজ জীবে প্রেম করতে এসেছি, দয়া বা দান করতে আসিনি। তিনি আরও বলেন, রামকৃষ্ণ মিশনই একমাত্র সংগঠন যারা সকল ধর্মের মানুষদের নিয়ে কাজ করে। কে হিন্দু, কে মুসলমান, কে বৌদ্ধ, কে খ্রিস্টান এটা ভেবে রামকৃষ্ণ মিশন সেবা করে না। রামকৃষ্ণ মিশন যে যেই ধর্মেরই হোক না কেন শুধুমাত্র মানুষ ভেবেই সকলের সেবা করে থাকে। তিনি কড়ৈতলী শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রমের পরিচালনা কমিটির উদ্দেশ্যে বলেন, ঠাকুরের পূজার্চনার পাশাপাশি সেবামূলক কাজও করতে হবে।

উপস্থিত ছিলেন কড়ৈতলী শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রমের নীতি নির্ধারণী সদস্য ডাঃ প্রদীপ কুমার সিংহ রায়, প্রণবানন্দ মজুমদার, সহ-সভাপতি উত্তম চন্দ্র পাল, শিখা রাণী মজুমদার, সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ পলাশ চন্দ্র রায়, যুগ্ম সম্পাদক অঞ্জন চন্দ্র দে, সদস্য প্রান্ত কুমার সিংহ রায়, মহন চন্দ্র দাস, শান্ত চন্দ্র সিংহ রায় প্রমুখ।