• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
  • ||
  • আর্কাইভ

ব্রেকিং নিউজ

বাকাসস চাঁদপুর জেলা শাখার অব্যাহত আন্দোলন কর্মসূচিতে বক্তাগণ

নভেম্বরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে বৃহত্তর আন্দোলন

প্রকাশ:  ২১ নভেম্বর ২০২০, ১৩:০১
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

পদ-পদবির বৈষম্য দূরীকরণসহ বিভিন্ন দাবি আদায়ের লক্ষ্যে বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতি (বাকাসস)-এর আন্দোলন কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সানুগ্রহ নির্দেশনার পরও দীর্ঘদিন বিভাগীয় কমিশনার, জেলা ও উপজেলা মাঠ প্রশাসনে কর্মরত (১৬-১১ গ্রেড) চাকুরিজীবীদের পদ-পদবি ও গ্রেড পরিবর্তন অথবা সচিবালয়ের ন্যায় নিয়োগবিধি প্রণয়নের যৌক্তিক ও ন্যায়সঙ্গত দাবি বাস্তবায়নের জন্যে ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালন করেন বাংলাদেশ কালেক্টরেড সহকারী সমিতি (বাকাসস) চাঁদপুর জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ। তারা কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক কর্মসূচি অনুযায়ী গত ১৫ থেকে ১৯ নভেম্বর সকাল ৯টায় হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর দিয়ে বিকেল থেকে ৫টা পর্যন্ত পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালনসহ অফিস চত্বরে ব্যানার-পোস্টারসহ অবস্থান নেন। এমনিভাবে আগামী ২২/২৬ ও ২৯/৩০ নভেম্বর পর্যন্ত তাদের এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে জানা যায়। এ কর্মসূচি পালনকালীন যদি দাবি আদায় না হয়, তাহলে তারা আগামী ৫ ডিসেম্বর ঢাকা প্রেসক্লাবের সামনে সকাল সাড়ে ১০টায় স্ব স্ব জেলার ব্যানারসহ মানববন্ধন, সমাবেশ অনুষ্ঠানে পরবর্তী আন্দোলনের ঘোষণা প্রদান করবেন বলে জানা যায়।

গত ১৯ নভেম্বর আন্দোলন চলাকালীন নেতৃবৃন্দের মাঝে বক্তব্য রাখেন জেলা বাকাসসের সভাপতি মোঃ নেছার আহাম্মদ, সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান, উপদেষ্টা ভোলানাথ নন্দী, মোঃ আক্তারুজ্জামান, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোঃ জহিরুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক জসিম উদ্দিন পাটওয়ারী, প্রচার সম্পাদক মোঃ আলমগীর সগীর, ধর্মীয় সম্পাদক মিজানুর রহমান, ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ খাজা আহম্মদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নূরুল্লাহ ফয়সাল প্রমুখ।

বক্তাগণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, দাবি আদায়ের লক্ষ্যে কলমবিরতি দিয়ে আন্দোলন-সংগ্রাম করতে চাই না। আমরা আমাদের দায়িত্ব পালন করতে চাই। কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আজ আমরা অসহায় হয়ে দাবি আদায়ের সংগ্রামে রাস্তায় নেমেছি। আপনি মানবতার মা উপাধি পেয়ে আমাদেরকে গর্বিত করেছেন। আমরা আশা করি, মানবিক দিক বিবেচনা করে আমাদের ২ দফা দাবি মেনে নিয়ে চাকুরি ক্ষেত্রে আমাদের সাথে যে বৈষম্য সৃষ্টি হয়েছে তা দূরীকরণে আন্তরিক হবেন।