• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮
  • ||
  • আর্কাইভ

চাঁদপুর পৌর আওয়ামী লীগের ৭ মার্চের আলোচনা সভা

৭ মার্চের ভাষণ শুধু বাঙালির স্বাধীনতার বিজয় নয়, এই ভাষণ সহস্রাব্দের শ্রেষ্ঠ ভাষণ : আলহাজ্ব মোঃ ইউছুফ গাজী

প্রকাশ:  ০৮ মার্চ ২০২১, ১২:৪৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

চাঁদপুর  পৌরসভা ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এবং জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ ইউছুফ গাজী বলেছেন, কারো বাঁশি হুইসেলে বা একদিনে দেশের স্বাধীনতা চলে আসেনি। স্বাধীনতার মূলমন্ত্র হচ্ছে ৭ মার্চের ভাষণ। এ ভাষণের মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মূলত বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছেন এবং স্বাধীনতা সংগ্রামের মূল ইঙ্গিত ও নির্দেশনা দেন।
তিনি আরো বলেন, পৃথিবীর শত শত রাষ্ট্রের মধ্যে বাংলাদেশ একটি রাষ্ট্র, আর এই রাষ্ট্রের জনক হচ্ছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। অথচ এই রাষ্ট্রে বসবাস করে সকল সুযোগ সুবিধা বহন করেও জাতির পিতাকে মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। সে কষ্টের অংশ হিসেবে স্বাধীনতার পূর্ব থেকে স্বাধীনতাবিরোধী চক্র দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে দেশকে একটি পঙ্গু রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। এদের থেকে সতর্ক থাকতে সকলকে তিনি আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, ৭ মার্চ হলো জাতির জন্যে একটি ঐতিহাসিক দিন। এ দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ বাঙালি জাতিকে প্রেরণা যুগিয়েছে এবং এ প্রেরণা থেকে বাঙালি জাতি তাদের বিজয় ছিনিয়ে এনেছে। তিনি আরো বলেন, ৭ মার্চের ভাষণ শুধু বাঙালির স্বাধীনতার বিজয় নয়, এই ভাষণ সহ¯্রাব্দের শ্রেষ্ঠ ভাষণ। যে ভাষণটি জাতিসংঘ কর্তৃক শ্রেষ্ঠ ভাষণ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। আলহাজ্ব মোঃ ইউছুফ গাজী গতকাল ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে চাঁদপুর পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সড়কস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
পৌর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এমরান হোসেন সেলিম ও চাঁদপুর সদর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেন মিয়াজীর যৌথ উপস্থাপনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ জে আর ওয়াদুদ টিপু,  পৌর মেয়র অ্যাডঃ মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল,  জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটোয়ারী, অ্যাডঃ মোঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ও পিপি অ্যাডঃ রনজিৎ রায় চৌধুরী, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ মাসুদ আলম মিল্টন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডঃ আহসান হাবিব, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম সালাউদ্দীন, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী অধ্যাপিকা মাসুদা নূর খান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলী আর্শ্বাদ মিয়াজী, চাঁদপুর পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান বাবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ আহমেদ মিঠু, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, প্যানেল মেয়র ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক  মোহাম্মদ আলী মাঝি, জেলা শ্রমিক লীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী সাহিদা আক্তার, পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শিপ্রা দাস, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ফরিদা ইলিয়াস, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এমএ হাসান লিটন, সদর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অ্যাডঃ মোঃ হুমায়ুন কবির সুমন, পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক ও পৌর কাউন্সিলর আঃ মালেক শেখ, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জহির উদ্দিন মিজি,  সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন গাজী ও পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম রবিন পাটওয়ারী ।
আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ডাঃ জে আর ওয়াদুদ টিপু বলেন, আমি অত্যন্ত সৌভাগ্যবান ব্যক্তি যে ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ ঐতিহাসিক এই ভাষণটি সরাসরি শোনার সৌভাগ্য আমার হয়েছিলো। সেদিন আমার বয়স ছিলো ১০ বছর, আপনাদের শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপির বয়স ছিলো ৬ বছর। আমাদেরকে সেদিন আমার মা ২ জনকে নিয়ে ঐতিহাসিক ভাষণ শোনার জন্যে রেসকোর্স ময়দানে নিয়ে যান। আর বাবা তো পূর্ব থেকেই সমাবেশ সফল করার জন্যে কাজ করেন।
তিনি সর্বোপরি সকলকে ঐক্যবদ্ধ নেতৃত্বের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করার আহ্বান জানান এবং দলের মধ্যে দ্বিধা দ্বন্দ্ব না করার আহ্বান জানান।

 

 

সর্বশেষ সংবাদ