• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ৯ বৈশাখ ১৪২৮
  • ||
  • আর্কাইভ

সন্ধ্যায় গেলো শ্বশুরবাড়ি, সকালে মিললো লাশ

প্রকাশ:  ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:২৬
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

সন্ধ্যায় গেলো শ্বশুরবাড়ি, সকালে মিললো লাশ। তিনি হতভাগ্য নববধূ মিশু আক্তার (১৮)। রাতে কী এমন ঘটলো যে মিশুকে লাশ হতে হলো? সন্ধ্যায় বাবার বাড়ি থেকে স্বামীসহ গেলেন শ্বশুর বাড়িতে। মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর অর্থাৎ পরের দিন ভোরে মিশুর মাকে ফোনে জানানো হলো আপনার মেয়ে মারা গেছে। ঘটনাটি গত শনিবার দিবাগত রাতের ঘটনা। পুলিশ ইতিমধ্যে মিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্বামী রাসেল (২৪)কে আটক করেছে।


রাসেল উপজেলার গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের তারালিয়া সর্দার বাড়ির ওসমান সর্দারের ছেলে। নিহত মিশু পাশের গ্রাম মৈশামুড়ার ইয়াছিন বেপারী বাড়ির প্রবাসী রফিকের মেয়ে। গত এপ্রিলে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়।

মিশুর মা মরিয়ম বেগম  জানান, কয়েক মাস আগে আমার মেয়েটাকে বিয়ে দিই। বিয়ের পর বেশিরভাগ সময় মেয়ে আমার কাছে থাকতো। কয়েকদিন আগে জামাই আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে। গত শনিবার বিকেলে জামাইসহ মেয়ে তার শ্বশুর বাড়িতে যায়। এদিন রাতে এশার নামাজের পর ফোনে মেয়ের খবর নিয়েছি। তখন জেনেছি সে ভালো ছিলো। পরের দিন অর্থাৎ রোববার সকালে উপজেলা হাসপাতাল (স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স) থেকে জামাইয়ের মামা ফোন করে জানায় আমার মেয়ে মারা গেছে।

হাজীগঞ্জ থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন রনি জানান, হাসপাতাল থেকে খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরতহাল রিপোর্টে দেখা গেছে নিহতের গলায় একটি আঘাতের দাগ রয়েছে। মৃত্যুর বিষয়টি সন্দেহজনক থাকায় গৃহবধূর স্বামীকে আটক করা হয়েছে। গৃহবধূর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মিশু আক্তারের মা বাদী হয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।