• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ৬ মাঘ ১৪২৭
  • ||
  • আর্কাইভ

ব্রেকিং নিউজ

ঘটনাস্থল থেকে সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ

হাজীগঞ্জে ছাত্রদলের মিছিল থেকে পুলিশের উপর হামলা আহত ১

প্রকাশ:  ১৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:০২
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

হাজীগঞ্জে ছাত্রদলের মিছিল থেকে পুলিশের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে হাজীগঞ্জ থানার একজন উপ-পরিদর্শক (এসআই) আহত হয়েছেন। তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেন। ঘটনার পর ডিবি পুলিশের একটি টিমসহ হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ বাজারে অবস্থান নেয়। এদিকে ঘটনাস্থলের একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে পুলিশ হামলাকারীদেরকে সনাক্ত করেছে বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটে হাজীগঞ্জ মধ্য বাজারস্থ প্রধান সড়কের উপর স্টেশন রোডের মাথায়। হামলার কিছু পরেই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধা সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ মামলা করার বিষয়ে সাংবাদিকদের অবহিত করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, নোয়াখালী জেলা ও দায়রা জজ আদালত কর্তৃক বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নামে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে হাজীগঞ্জ উপজেলা ও পৌরসভা ছাত্রদলের ব্যানারে এই মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিলটি হাজীগঞ্জ পূর্ব বাজার থেকে শুরু হয়ে মধ্য বাজারে পর্যন্ত আসে। মিছিলের পূর্ব অনুমতি না থাকা পুলিশ মধ্য বাজারে মিছিলে বাধা দেয়। এ সময় মিছিলের পেছন থেকে পুলিশের ওই কর্মকর্তার উপর অতর্কিতে হামলা চালায় কয়েক যুবক। মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা সাবেক সাংসদ মরহুম এম.এম মতিনের সমর্থনকারী।

এদিকে পুলিশের উপর হামলার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন রনিসহ পুলিশ সদস্যরা। এ সময় পুলিশ হামলাকারীদের ধরতে স্টেশন সড়কের প্রায় ১ কিলোমিটার পর্যন্ত অভিযান চালায়। এ সময় হাজীগঞ্জ পুলিশের সাথে যোগ দেয় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। পরে স্টেশন সড়কের মুখের পূর্বপাশের একটি দোকানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে কয়েকজন হামলাকারীকে সনাক্তসহ ফুটেজ উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ও উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সদস্য সচিব জিসান আহমেদ ছিদ্দিকী বলেন, মিছিল নিয়ে বড় মসজিদের সম্মুখে আসলে এসআই সুমন মিয়া সঙ্গীয় ফোর্স আমাদেরকে মিছিল না করার জন্যে বলেন। এরপর আমরা মিছিল ছাড়াই চলে এসেছি। এখন মিছিলের পেছন দিক থেকে কে বা কারা কী করেছে, তা আমরা জানি না।

উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ও পৌর ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক ইয়াছিন আরাফাত অনিক মুঠোফোনে বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। পুলিশের উপর হামলায় আমাদের কেউ জড়িত ছিলো না। এর আগেও বিভিন্ন সময়ে আমরা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দলীয় কর্মসূচিগুলো পালন করেছি। কখনো আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সাথে আমাদের ঝামেলা হয়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এই দিন বিকালে মোঃ ইউনুছ নামের হাজীগঞ্জ থানা পুলিশের একজন কর্মকর্তা জরুরি বিভাগ থেকে আহত অবস্থায় চিকিৎসা নিয়েছেন।

বিক্ষোভ মিছিলের জন্য পুলিশ থেকে অনুমতি নেয়া হয়নি উল্লেখ করে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন রনি জানান, ছাত্রদলের মিছিল থেকে পুলিশের উপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়েছে। এখন (ওই সময়) পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এই ঘটনার সাথে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (চাঁদপুর সদর সার্কেল) স্নিগ্ধা সরকার। ঘটনাটি পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ করে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

সর্বাধিক পঠিত