• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • রোববার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||
  • আর্কাইভ

ব্রেকিং নিউজ

রহিমানগরে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকার শিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশ:  ৩১ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:০৫
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

কচুয়া উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া তালিমুল ক্বওমী মাদ্রাসার ছাত্রকে বলাৎকারের ঘটনায় ওই মাদ্রাসার শিক্ষক মোঃ ওমর ফারুককে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।


জানা গেছে, ওই মাদ্রাসার নাজেরা বিভাগের ১৪ বছরের আবাসিক ছাত্রকে সোমবার শিক্ষকদের ব্যবহৃত বাথরুমে জোরপূর্বক ডেকে নিয়ে শিক্ষক ওমর ফারুক বলাৎকার করে। মঙ্গলবার বিকেলে কৌশলে ছাত্রটি পালিয়ে বাড়িতে গিয়ে তাকে জোরপূর্বক বলাৎকারের কথা তার বাবা ও মাকে জানায়। স্থানীয়রা জানতে পেরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মাদ্রাসা ঘেরাও করে ও মাদ্রাসার জানালা ভাংচুর করে। এ সময় উত্তেজিত জনতা উপজেলার আকিয়ারা গ্রামের মোবারক হোসেনের পুত্র মাদ্রাসার শিক্ষক ওমর ফারুকের মাথা ন্যাড়া করে দেয় এবং বিক্ষোভ মিছিল করে ধর্ষক ওমর ফারুকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানায়। সংবাদ পেয়ে কচুয়া থানার এসআই মকবুল হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ওমর ফারুককে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। রাতে মাদ্রাসার ছাত্রের পিতা তৌহিদুল ইসলাম ওমর ফারুককে বিবাদী করে কচুয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। বুধবার ধর্ষক ওমর ফারুককে চাঁদপুরের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়। মাদ্রাসার শিক্ষক ওমর ফারুক বলেন, ছাত্রটিকে মারধর করায় ষড়যন্ত্র করে আমাকে ফাঁসানো হয়েছে।